মাঙ্কিপক্স ভাইরাসের নাম পরিবর্তন করা হবে, শিগগিরই নতুন নাম ঘোষণা করবে WHO!

1 Views


নাম পরিবর্তন করুন Monkeypox Virus: বিশ্বের প্রায় ৩০টি দেশে আতঙ্ক ছড়ানো মাঙ্কিপক্স ভাইরাসের নাম পরিবর্তন করা হবে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (WHO) নিজেই বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। বিশ্বজুড়ে বিজ্ঞানীদের মতামত জেনে এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে ডব্লিউএইচও। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মহাপরিচালক টেড্রোস আধানম ঘেব্রেয়াসুস বলেছেন, বিশ্বজুড়ে বিশেষজ্ঞরা মাঙ্কিপক্স ভাইরাসের নাম পরিবর্তনের জন্য আলোচনা করছেন। বৈশ্বিক ক্ষোভের পর এই নাম এসেছে, একে বৈষম্যমূলক এবং কলঙ্কজনক বলে অভিহিত করা হয়েছে।

মহাপরিচালক মঙ্গলবার বলেছিলেন যে আমরা বিশ্বজুড়ে অংশীদার এবং বিশেষজ্ঞদের সাথে মাঙ্কিপক্স ভাইরাসের নাম, এর গ্রুপ এবং এটি যে রোগ সৃষ্টি করে তার নাম পরিবর্তন করতে কাজ করছি। আসলে, 30 জন আন্তর্জাতিক বিজ্ঞানীর চিঠি পাওয়ার পর WHO এই পদক্ষেপ নিয়েছে। তিনি বলেন, ডব্লিউএইচও যত তাড়াতাড়ি সম্ভব নতুন নাম ঘোষণা করবে।

  আয়ারল্যান্ডে মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক বিলুপ্ত হওয়ার সাথে সাথেই করোনা কেস বাড়তে শুরু করেছে, এত নতুন কেস পাওয়া গেছে

মাঙ্কিপক্স ভাইরাস আফ্রিকার সাথে যুক্ত

চিঠিতে অবিলম্বে নাম পরিবর্তনের ওপর জোর দেওয়া হয়েছে। চিঠিতে লেখা হয়েছে, বিষয়টি নিয়ে ক্রমাগত আলাপ-আলোচনা ও আলোচনার পর নিশ্চিতভাবেই বোঝা যাচ্ছে যে এটিকে বৈষম্যহীন ও কলঙ্কমুক্ত নাম দেওয়া উচিত। ভাইরাসটির নাম বারবার আফ্রিকার সাথে যুক্ত করা হচ্ছে এবং আফ্রিকান পটভূমির লাইনে এটির নাম রাখা একেবারেই ভুল। এটি কাউকে বৈষম্য এবং কলঙ্ক দেখায়।

বিশ্বের কয়েক ডজন দেশে রোগ ছড়িয়ে পড়েছে

ডাব্লুএইচও রোগটির নাম পরিবর্তন করার জন্যও কাজ করছে, যা দীর্ঘদিন ধরে পশ্চিম ও মধ্য আফ্রিকায় সীমাবদ্ধ ছিল। গত দুই মাসে বিশ্বের ডজনখানেক দেশে এক হাজারেরও বেশি কেস শনাক্ত হয়েছে।এই প্রাদুর্ভাবকে অস্বাভাবিক ও উদ্বেগজনক বলে বর্ণনা করে ডব্লিউএইচও মহাপরিচালক বলেন, এই কারণেই আমরা জরুরি কমিটি গঠনের সিদ্ধান্ত নিয়েছি। পরের সপ্তাহে আন্তর্জাতিক স্বাস্থ্য প্রবিধানের অধীনে। প্রাদুর্ভাবটি আন্তর্জাতিক উদ্বেগের জনস্বাস্থ্য জরুরি অবস্থার প্রতিনিধিত্ব করে কিনা তা মূল্যায়ন করতে।

  ইউকে মাঙ্কিপক্স সংক্রান্ত নির্দেশিকা জারি করেছে

মত কিছু নামকরণ

মিডিয়াতেও, ভাইরাস সম্পর্কিত বেশিরভাগ ছবিতে আফ্রিকান লোকদের দেখা যায়। সম্প্রতি, আফ্রিকার ফরেন প্রেস অ্যাসোসিয়েশন একটি বিবৃতি জারি করে বিশ্ব মিডিয়াকে মহামারীর জন্য আফ্রিকান মানুষের ছবি ব্যবহার বন্ধ করার আহ্বান জানিয়েছে। বিজ্ঞানীরা মনে করেন, এই রোগের নাম এমনভাবে রাখা উচিত যাতে কোনো দেশে এর নেতিবাচক প্রভাব না পড়ে।

আরও পড়ুন: WHO on Monkeypox: মাঙ্কিপক্সের প্রাদুর্ভাব কি একটি আন্তর্জাতিক স্বাস্থ্য জরুরী? WHO-এর জরুরি বৈঠকে মূল্যায়ন করা হবে

আরও পড়ুন: মাঙ্কিপক্স ভাইরাস: করোনার পর মাঙ্কিপক্স ধাক্কা খেয়ে ভুগছে বহু দেশ

,



Source link

Leave a Comment