তিনটি রোগ চ্যালেঞ্জ বাড়িয়েছে: করোনা ভাইরাস সারা বিশ্বে তাণ্ডব চালিয়েছে। চীন থেকে উদ্ভূত এই ভাইরাসটি অবিলম্বে পুরো বিশ্বকে নিজের বাহুতে নিয়েছিল এবং লক্ষ লক্ষ জীবনকে তার শিকারে পরিণত করেছিল। ভ্যাকসিন আসার পর মৃতের সংখ্যা কিছুটা কমলেও করোনা শেষ হয়নি। আগের তুলনায় এর গতি কিছুটা কমেছে। এমনকি এখন এটি কিছু দেশে মৃত্যুর বেলেল্লাপনা করতে দেখা যায়। করোনা সংক্রমণের মহামারী থেকে গোটা বিশ্ব তখনো কাটিয়ে উঠতে পারেনি যে নতুন তিনটি রোগ ‘মাঙ্কিপক্স’, ‘হেপাটাইটিস’ এবং ‘টমেটো ফ্লু’ বিশ্বের অনেক দেশেই কড়া নাড়ছে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) জানিয়েছে যে মাঙ্কিপক্স বিশ্বের 12টি দেশে 92 জনকে সংক্রামিত করেছে। আসুন আমরা আপনাকে বলি যে এই তিনটি নতুন রোগ কোন কোন দেশে প্রবেশ করেছে এবং কত মানুষ তাদের সংক্রমণে আক্রান্ত হয়েছে। এসব রোগের আগমনে সারা বিশ্বে আতঙ্ক বিরাজ করছে। একই সঙ্গে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনও মাঙ্কিপক্সের ক্রমবর্ধমান মামলা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন।

  পড়ুন, রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের সবচেয়ে বিপজ্জনক যুদ্ধক্ষেত্রে পৌঁছেছে এবিপি নিউজের এই প্রতিবেদন

টমেটো ফ্লু
টমেটো ফ্লু একটি ভাইরাল সংক্রমণ। এই ভাইরাস বেশিরভাগই 5 বছরের কম বয়সী শিশুদের প্রভাবিত করে। এই ভাইরাসের সংক্রমণে সৃষ্ট রোগটির নামকরণ করা হয়েছে টমেটো ফ্লু কারণ এটি যখন শিশুদের আক্রান্ত করে তখন আক্রান্ত শিশুদের শরীরে টমেটোর মতো লাল রঙের ফুসকুড়ি বের হয়। এই দানায় চুলকানি হয়, যা ঘামাচি করে জ্বালা করে। আক্রান্ত শিশুরও প্রচণ্ড জ্বর হয়। এছাড়া আক্রান্ত শিশুর শরীর ও জয়েন্টে ব্যথার অভিযোগও রয়েছে। এই ভাইরাস এর সংক্রমণে শিশুদের হজম শক্তি নষ্ট করে, যার কারণে শিশুরা পানিশূন্যতার শিকার হয়।

হেপাটাইটিস
গত কয়েকদিন ধরে, বিশ্বজুড়ে শিশুদের মধ্যে ব্যাখ্যাতীত তীব্র হেপাটাইটিসের কেস দেখা যাচ্ছে। গবেষকরা বুঝতে শুরু করেছেন কেন হঠাৎ এই ধরনের মামলার সংখ্যা বাড়তে শুরু করেছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও), ইউএস সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন (সিডিসি) এবং ইউকে হেলথ সিকিউরিটি এজেন্সি সহ প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা এই রোগের বিষয়ে একটি সতর্কতা জারি করেছেন, কারণ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে কেস বাড়ছে। শিশুরা তখনই তীব্র হেপাটাইটিস পায় যখন তাদের লিভারের প্রদাহ হয়, প্রদাহের কারণে রক্তে লিভারের এনজাইমের পরিমাণ বৃদ্ধি পায়, এই রোগটি প্রধানত হেপাটাইটিস ভাইরাসগুলির একটির কারণে বা কিছু অটোইমিউন অবস্থার কারণে হয়। যাইহোক, গবেষকরা এখনও এর জন্য অন্যান্য ব্যাখ্যা এবং সম্ভাব্য কারণ খুঁজছেন।

  মিশরীয় সরকার ঈদের আগে রাজনৈতিক কর্মী ও সাংবাদিকসহ ৪১ বন্দিকে মুক্তি দিয়েছে

বানরপক্স
মাঙ্কিপক্স হল মানুষের গুটি বসন্তের মতোই একটি বিরল ভাইরাল সংক্রমণ। এটি প্রথম 1958 সালে গবেষণার জন্য রাখা বানরের মধ্যে পাওয়া যায়। মাঙ্কিপক্সের সংক্রমণের প্রথম ঘটনা 1970 সালে রিপোর্ট করা হয়েছিল। এই রোগটি প্রধানত মধ্য ও পশ্চিম আফ্রিকার গ্রীষ্মমন্ডলীয় রেইনফরেস্ট অঞ্চলে দেখা দেয় এবং মাঝে মাঝে অন্যান্য অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়ে। হায়দ্রাবাদের যশোদা হাসপাতালের সংক্রামক রোগের পরামর্শক ডাঃ মোনালিসা সাহু বলেন, মাঙ্কিপক্স একটি বিরল জুনোটিক রোগ যা মাঙ্কিপক্স ভাইরাস দ্বারা সৃষ্ট। Monkeypox ভাইরাসটি Poxviridae পরিবারের অন্তর্গত, এতে চিকেনপক্স এবং চিকেনপক্স সৃষ্টিকারী ভাইরাসও রয়েছে।

উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন
মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন রবিবার মাঙ্কিপক্সের ক্রমবর্ধমান কেস নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। বিডেন রবিবার বলেছিলেন যে ইউরোপ এবং আমেরিকায় মাঙ্কিপক্সের সাম্প্রতিক কেস নিয়ে উদ্বিগ্ন হওয়া দরকার। দক্ষিণ কোরিয়ার একটি বিমানবন্দরে সাংবাদিকদের সাথে কথা বলার সময় বাইডেন প্রথমবারের মতো এই রোগ সম্পর্কে প্রকাশ্যে মন্তব্য করেছিলেন। বিডেন বলেন, এই সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়লে তার ফল ভোগ করতে হবে।

  तेल और गैस खरीद के जरिए रूस को चीन की ओर से मिल रहा समर्थन, अमेरिका नाराज

আরও পড়ুন:

মাঙ্কিপক্স কেস: 12 টি দেশে মাঙ্কিপক্সের 92 রোগী, বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়ার সতর্কতা WHO

এবিপি এক্সক্লুসিভ: ‘জ্ঞানবাপির সিদ্ধান্তের পরে, কেউ আবার রাজ্যসভার সদস্য হতে পারেন’ – তৌকীর রাজা খান

,



Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published.