রোহতাস: সিআরপিএফ কনস্টেবল ধর্মেন্দ্র কুমার সিং, দানওয়ার পঞ্চায়েতের সারিয়া গ্রামের বাসিন্দা, ওডিশায় নকশালদের সাথে লড়াই করার সময় শহীদ হন (সিআরপিএফ কনস্টেবল ধর্মেন্দ্র কুমার সিং শহীদ)। মঙ্গলবার খবর পেয়ে গ্রামে আগাছা ছড়িয়ে পড়ে। পরিবারে তখন হাহাকার। শহিদ জওয়ানের স্ত্রী জানিয়েছেন, মঙ্গলবার সকাল ৯টার দিকে তিনি কথা বলেছিলেন। ধর্মেন্দ্র বলেছিলেন যে তিনি ডিউটিতে যাচ্ছেন। সেখানে কোনো নেটওয়ার্ক নেই। ফিরে আসার কথা বলবে। বিকেল চারটার দিকে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, তিনি আর নেই।

2011 সালে শহিদ জওয়ান ধর্মেন্দ্র কুমার সিং ভর্তি হন। তার বাবা রামায়ণ সিং একজন কৃষক। ধর্মেন্দ্রর প্রথম পোস্টিং ছিল মোকামায়। এরপর ওড়িশায় চলে যান। মঙ্গলবার নৌপাদা জেলার পথধার এলাকায় নকশালদের সঙ্গে লড়াই করতে গিয়ে তিনি শহীদ হন। খবর পেয়েই শহিদ জওয়ানের বাড়িতে ভিড় জমে যায়। শোকের নীরবতা ছড়িয়ে পড়ে।

  যোধপুরে মাল লোডিংয়ে রেকর্ড তৈরি করেছে রেল, একদিনে 5.89 কোটি রুপি আয় করেছে

এছাড়াও পড়ুন- এক্সক্লুসিভ: 2022 সালের রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে এনডিএ প্রার্থী দ্রৌপদী মুর্মুকে সমর্থন করবেন নীতিশ কুমার! পূর্ণ সমীকরণ কি জেনে নিন

খবর পেয়ে আঁতকে ওঠেন স্ত্রী

কথিত আছে, শহিদ জওয়ান বাড়ির বড় ছেলে। বাড়িতে ছোট ভাই, বাবা-মা, স্ত্রী আশা দেবী ছাড়াও থাকেন। দুটি বাচ্চা আছে। একটি 12 বছরের ছেলে এবং 10 বছরের একটি মেয়ে রয়েছে। ঘটনার পর স্ত্রীর মেজাজ খারাপ। একই সঙ্গে বাবার শাহাদাতে শোকাহত শিশুরা।

শহিদ জওয়ান ধর্মেন্দ্রর বিয়ে হয়েছিল 2005 সালে ভোজপুর জেলার পিরো থানার অন্তর্গত রাজমাল দেহ গ্রামে। স্ত্রী জানান, বিকেল চারটার দিকে ধর্মেন্দ্রর এক বন্ধু ঘটনাটি জানায়। এরপর গভীর রাতে ফোনে সিআরপিএফ আধিকারিকেরা এ কথা জানান।

  সম্বলে গ্যাংস্টার অভিযুক্তের ৩৪ লক্ষ টাকার সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত, ড্রাম দিয়ে তৈরি টাকা

আরও পড়ুন- অগ্নিপথ প্রকল্প: বিহারের 20টি জেলায় ইন্টারনেট বন্ধ ছিল, এখন ডেটা ফেরত দেওয়ার জন্য মোবাইল সংস্থার বিরুদ্ধে মামলা

,



Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published.