রাতে ভুলেও নওয়াদা সদর হাসপাতালে এসো না, এখানে ডাক্তাররা নিখোঁজ, বাকী জিজ্ঞাসা করবেন না।

2 Views


নওয়াদা: নওয়াদার সদর হাসপাতালে ২৪ ঘণ্টা জরুরি পরিষেবার দাবি সম্পূর্ণ ব্যর্থ হয়েছে। সন্ধ্যা হলেই এখানে দুর্বল হয়ে পড়ে হাসপাতাল ব্যবস্থা। রাতে চিকিৎসার আশা নিয়ে আসা রোগীরা এখানে হতাশা বোধ করেন। ডাক্তার বাদ দিন, রাত নামার সাথে সাথে কর্মচারীরাও ছুটতে শুরু করে নিজ নিজ বিবেচনায়। বৃহস্পতিবার রাতে যখন এবিপি বিহার তদন্ত করে, তখন অনেক চমকপ্রদ ঘটনা সামনে আসে।

পোস্টমর্টেম রোডের বাসিন্দা ধনঞ্জয় বৃহস্পতিবার রাত নয়টার দিকে স্ত্রীকে নিয়ে হাসপাতালে পৌঁছান। তার সঙ্গে চার মাস বয়সী একটি শিশুও ছিল, যার প্রচণ্ড জ্বর ছিল। শিশুটিকে নিয়ে দম্পতি যখন এসএনসিইউ ওয়ার্ডে পৌঁছান, সেখানে কোনও চিকিৎসক ছিলেন না। জানতে চাইলে নার্স বলেন, ডাক্তার এখনো নেই, ১০টার পর আসবেন। তারা অপেক্ষা করতে লাগল। তখন ডিউটি ​​ছিল ডাঃ প্রশান্ত কুমারের। ডিউটি ​​রোস্টার অনুযায়ী তার ডিউটি ​​ছিল রাত ৮টা থেকে সকাল ৮টা পর্যন্ত।

  আজমগড় উপনির্বাচন: গুড্ডু জামালি কি মাঠে জিতবেন, নাকি ধর্মেন্দ্র যাদব চমক দেখাবেন? , যুদ্ধক্ষেত্র

আরও পড়ুন- নওয়াদা নিউজ: নওয়াদায় মা ও শিশুর মৃত্যুর পর নার্সিংহোমে হানা দিল স্বাস্থ্য দফতর, পলাতক চিকিৎসক-কর্মীরা

নার্স ডাক্তারকে ডেকে খবর দেন

চিকিৎসকের অনুপস্থিতির খবর জানার পর গণমাধ্যমকর্মীরা এসএনসিইউ ওয়ার্ডে গিয়ে নার্সকে জিজ্ঞাসা করলে তিনি বলেন, ডাক্তার এসেছেন, সঙ্গে সঙ্গে আসছেন। এর পর নার্স ডাক্তার ডাকতে থাকে। কিছুক্ষণ পর ডাক্তার তার চেম্বারে পৌঁছান। এরপর ডক্টর প্রশান্ত কুমারকে দায়িত্ব থেকে অনুপস্থিত থাকার বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে তিনি রেগে যান। ডাক্তার বললেন-এ সব অনেকবার দেখেছি। সবাই জানে আমি কি দায়িত্ব পালন করি।

বহুবার রোগী মারা গেছে

সদর হাসপাতালের চিকিৎসকদের অবহেলায় অনেক রোগীর মৃত্যু হয়েছে। পরিবারের পক্ষ থেকে বহুবার এমন অভিযোগ করা হয়েছে। এ নিয়ে পরিবারের লোকজনও তোলপাড় শুরু করে। কিন্তু এরপরও এ ধরনের চিকিৎসকদের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে না। রাতে ডিউটি ​​থেকে অনুপস্থিত থাকার ঘটনা এটিই প্রথম নয়, এর আগেও এমন ঘটনা সামনে এসেছে।

  শিশুটিকে কামড়ানোর পর কীভাবে যন্ত্রণায় মারা গেল কোবরা সাপ? রক্তের নমুনা জানা যাবে

আরও পড়ুন- বিহারের খবর: ছোটবেলার প্রেম আমার ভুল… বিয়ের ৮ দিন পর প্রেমিকের কথা মনে পড়ল স্ত্রী, মাঝপথে ‘গাছ’ খেয়ে ফেললেন স্বামী

,



Source link

Leave a Comment