রিপোর্ট: চন্দন সাইনি

মথুরা। ইউপির মথুরার আমব্রেলা বিধানসভা কেন্দ্রে গরু ও বাছুরের মাঝে বসে শিক্ষা পাচ্ছে শিশুরা। কার্যত জরাজীর্ণ হয়ে পড়েছে প্রাক্তন মাধ্যমিক বিদ্যালয় আজনথীর ভবনটি। একই সঙ্গে একাধিক অভিযোগের পরও কোনো পদক্ষেপ নেয়নি শিক্ষা বিভাগ। এ কারণে নৌনিহাল তবলা-পালা-স্কুলের মাটিতে মাদুর বিছিয়ে পড়াশোনা করতে বাধ্য হয়। আশ্চর্যজনকভাবে, এই স্কুলটি ইউপি ক্যাবিনেট মন্ত্রী চৌধুরী লক্ষ্মী নারায়ণের ছত্রছায়ায় আসে।

NEWS 18 Local-এর টিম স্কুলে পড়ুয়া শিশুদের সঙ্গে কথা বললে তারা জানায়, আমরা ৩০ দিনের বেশি সময় ধরে এভাবে পড়াশোনা করছি। তিনি বলেন, আমরা যে বিদ্যালয়ে পড়ি সেটি সম্পূর্ণ জরাজীর্ণ এবং যে কোনো সময় তা ভেঙে পড়তে পারে। এমতাবস্থায় গরু-বাছুরের মধ্যে পড়ালেখা করা আমাদের বাধ্যতামূলক। আমরা যদি পড়াশুনা না করি তাহলে এগোবো কিভাবে?

শিশুরা আতঙ্কিত এবং অভিভাবকদের মন খারাপ
এ ব্যাপারে স্থানীয় লোকজনের সাথে কথা হলে তারা জানান, পুকুরের পাশেই এই বিদ্যালয়টি নির্মিত যার ভবনটি বর্তমানে সম্পূর্ণ জরাজীর্ণ, যে কোন সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনার শিকার হতে পারে। সেদিকে কেউ নজর দিচ্ছে না, তাই এখন এই স্কুলে ছেলেমেয়েদের পাঠানোর আশঙ্কা রয়েছে।

সরকারি স্কুল, সরকারি স্কুলের খবর, মথুরার খবর, ইউপি শিক্ষা বিভাগ, মথুরার সর্বশেষ খবর, চৌধুরী লক্ষ্মী নারায়ণ সিং

এই স্কুলটি ইউপি ক্যাবিনেট মন্ত্রী চৌধুরী লক্ষ্মী নারায়ণের ছত্রছায়ায়।

তাদের কথা শুনুন স্যার
বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক যোগেন্দ্র পাল সিং জানান, বিদ্যালয়ে ৩৭ জন শিশু পড়াশোনা করে। এই স্কুলটি 2005 সালে নির্মিত হয়েছিল, তারপরে আজ পর্যন্ত ভবনটির উপরে কোনও রক্ষণাবেক্ষণ করা হয়নি। একই সঙ্গে তিনি জানান, ভবনের জরাজীর্ণ অবস্থা দেখে আমরা ২৫ জুন শিশুদের গ্রামের বাসিন্দা রামদত্ত পণ্ডিতের কাছে নিয়ে যাই। এখানে শিশুরা নিম গাছের নিচে শিক্ষা গ্রহণ করে। প্রধান শিক্ষক বলছেন, এ বিষয়ে কর্মকর্তাদের বহুবার লিখিতভাবে জানানোর পরও কেউ শুনতে প্রস্তুত নয়। ক্লাস 6, 7 এবং 8 নিম গাছের নীচে পরিচালিত হয়।

ট্যাগ: সরকারি স্কুল, মথুরার খবর

,



Source link

Previous articleকমনওয়েলথ গেমস: শ্যুটিং বিশ্বকাপে ভারত সবচেয়ে বেশি পদক জিতলেও কমনওয়েলথে খালি হাতেই থাকতে হবে, কেন জানেন?
Next articleভারতে বিপুল সংখ্যক মহিলা ফেসবুক ছেড়ে যাচ্ছেন, মেটা গবেষণায় প্রকাশিত হয়েছে

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here