জিমে না গিয়ে মাত্র এই ৫টি অভ্যাসই আপনাকে স্লিম করে তুলবে, আজই অবলম্বন করুন


ওজন কমানোর দৈনিক রুটিন: আজকাল সবাই স্থূলতায় ভুগছে। বাজে জীবনযাপন ও খাদ্যাভ্যাসের কারণে ওজন বাড়ছে সবার। বিশেষ করে তরুণ-তরুণীরা ওজন বৃদ্ধি নিয়ে খুবই চিন্তিত। এটা একেবারেই সত্য যে ওজন কমানো এত সহজ নয়। আপনাকে যোগব্যায়াম করতে হবে এবং প্রচুর ব্যায়াম করতে হবে। একটি স্বাস্থ্যকর খাদ্য গ্রহণ করতে হবে, তাহলে কিছুটা ওজন কমে যায়, কিন্তু এই দুটি জিনিস বন্ধ করার সাথে সাথে আপনার ওজন আবার বাড়তে শুরু করে। এমন পরিস্থিতিতে আপনার ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখতে কিছু স্বাস্থ্যকর অভ্যাসকে জীবনধারার অংশ করা জরুরি। এতে আপনার ওজন ঠিক থাকবে এবং আপনিও অনেকদিন ফিট থাকবেন। চলুন জেনে নিই ওজন কমানোর জন্য কোন অভ্যাসগুলো গ্রহণ করতে হবে।

এই অভ্যাসগুলো আপনাকে পাতলা করে তুলবে

1- খাওয়ার পর গরম পানি পান করুন- আপনাকে এটি অভ্যাস করতে হবে যে আপনি প্রতিটি খাবারের আধা ঘন্টা পরে 1 গ্লাস গরম জল পান করুন। এতে আপনার খাবার সহজে হজম হবে এবং স্থূলতা বাড়বে না। মিষ্টি ও তৈলাক্ত খাবার খাওয়ার পর অবশ্যই গরম পানি পান করতে হবে। সারাদিন গরম পানি পান করলে ওজন কমে এবং মেটাবলিজম বাড়ে।

  বর্ষায় প্রচুর চাট পাকোড়া খান, সস্তায় এই বেস্ট সেলিং এয়ার ফ্রায়ার কিনুন

2- খাওয়ার আগে প্রচুর সালাদ খান- আপনি যখনই লাঞ্চ বা ডিনার করবেন, প্রায় আধা ঘন্টা আগে প্রচুর সালাদ খান। সালাদ খেলে পেট খুব ভরা থাকে। এভাবে খাবার কম খান। সালাদ ওজন কমাতে সাহায্য করে। সালাদ খেলে পেট সুস্থ থাকে। মেটাবলিজম বৃদ্ধি পায় এবং শরীর পুষ্টি পায়। আপনি সালাদে শসা, টমেটো, শসা, লেটুস, গাজরের মতো জিনিসগুলি অন্তর্ভুক্ত করুন।

3- খাওয়ার পর হাঁটুন- খাবার খাওয়ার পর একটা অভ্যাস গড়ে তুলুন যাতে আপনাকে অবশ্যই 15-20 মিনিট হাঁটতে হবে। এতে খাবার সহজে হজম হয়। খাবার খেয়ে হাঁটলে গ্যাসের সমস্যা হয় না। এতে স্থূলতা কমে। লাঞ্চ ও ডিনারের পর আধা ঘণ্টা হাঁটতে হবে।

4- গৃহস্থালির কাজ করুন- নিজেকে সক্রিয় রাখার চেষ্টা করুন। কিছু কাজ করার অভ্যাস করুন। তাদের মধ্যে জল ঢালা মত গাছপালা যত্ন নিন. ঘর সাজানোর অভ্যাস করুন। এটি আপনাকে আরও একটু সক্রিয় রাখবে। উঠে বসলে ওজনও কমে যাবে।

  মেকআপ তুলে ফেলুন: ঘুমানোর আগে এই টিপস অবলম্বন করে মেকআপ তুলে ফেলুন, স্বাস্থ্যকর ত্বকের জন্য এটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ

5- ফোনে কথা বলার সময় হাঁটুন- আপনি যদি ফোনে অনেক কথা বলেন, তবে চেষ্টা করুন যে যখনই কল আসে, আপনি হাঁটছেন। বাড়ির চারপাশে হাঁটার সময় কথা বলুন। এটি আপনাকে সচল রাখবে এবং এই অভ্যাসটি আপনাকে দীর্ঘমেয়াদে অনেক সুবিধা দেবে। এতে স্থূলতাও কমবে।

6- সকাল-সন্ধ্যা বাসা থেকে বের হওয়া- কেউ কেউ কয়েক সপ্তাহ ঘর থেকে বের হন না। এমনটা করলে নেতিবাচকতা বাড়ে। আপনার এই অভ্যাস আপনার স্থূলতাও বাড়িয়ে দিতে পারে। তাই সকাল-সন্ধ্যা বাড়ির বাইরে যাওয়া, পার্কে যাওয়া বা প্রয়োজনীয় জিনিস কিনতে যাওয়ার অভ্যাস করুন। এতে আপনার ওজন ধীরে ধীরে কমতে শুরু করবে।

দাবিত্যাগ: এবিপি নিউজ এই নিবন্ধে উল্লিখিত পদ্ধতি, পদ্ধতি এবং দাবিগুলি নিশ্চিত করে না। এগুলিকে শুধুমাত্র পরামর্শ হিসাবে নিন। এই ধরনের কোনো চিকিৎসা/ঔষধ/খাদ্য অনুসরণ করার আগে একজন ডাক্তারের সাথে পরামর্শ করুন।

  নিয়মিত গোমুখাসন অভ্যাস করুন, শরীর অনেক উপকার পাবেন

আরও পড়ুন: স্বাস্থ্য টিপস: বৃষ্টিতে এই সবজিগুলি এড়িয়ে চলুন, ক্ষতি হতে পারে

নীচের স্বাস্থ্য সরঞ্জামগুলি দেখুন-
আপনার বডি মাস ইনডেক্স (BMI) গণনা করুন

বয়স ক্যালকুলেটরের মাধ্যমে বয়স গণনা করুন

,



Source link

Leave a Comment